জাতির কাছে ক্ষমা চাইলেন টেস্ট অধিনায়ক

ঢাকা,০৩ অক্টোবর,(ডেইলি টাইমস ২৪):

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেই টস জিতে ব্যাটিং না নেওয়ার জন্য আফসোস করেছিলেন টাইগার ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিম। শুরুতেই ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে খেলতে নামা এই ম্যাচ জয়ের আশা করা ছিল বোকামি, তাই অধিনায়ক অন্তত ড্র প্রত্যাশা করেছিলেন।

কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে দলের ব্যাটিংয়ে যারপরনাই হতাশ তিনি! ৯০ রানে অলআউট হয়ে ৩৩৩ রানের বড় পরাজয়! এই বড় পরাজয় এবং ব্যাটিং বিপর্যয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন তিনি।
মুশি বলেছেন, ‘আমাদের ব্যাটিং নিয়ে যদি মন্তব্য করতে বলেন তবে উত্তরটা অবশ্যই হতাশাজনক। সত্যি বলতে কি, অধিনায়ক হিসেবে আমি নিজেই ভুলে গেছি বাংলাদেশ শেষ কবে এমন ব্যাটিং করেছে। ১০০ রানের নিচে শেষ কবে অলআউট হয়েছি নিজেও মনে করতে পারছি না। খুবই খারাপ লাগছে। ‘

পচেফস্ট্রুমে টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৭.১ ওভারেই শেষ হয় বাংলাদেশের ইনিংস। মুমিনুলের বিতর্কিত আউটের পর রিভিউ না নেওয়ায় ‘ভিলেন’ হয়ে যাওয়া ইমরুলের ৩২ রানই ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। ব্যাটসম্যান দুই অংকে পৌঁছাতে পারেননি। প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০০ রানের নিচে অলআউট হলো বাংলাদেশ।

সর্বশেষ ১০ বছর আগে ২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০০ রানের নিচে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। দেশের ক্রিকেটের উত্থানলগ্নে এমন পারফরম্যান্স সত্যিই হতাশাজনক।
টাইগার ক্যাপ্টেন নিজের খারাপ লাগাটা গোপন না করে বললেন, ‘পরাজয়ের অনেক ধরন আছে। অবশ্যই ম্যাচ বাঁচানো খুব কঠিন হতো। কিন্তু অন্তত দুইটা সেশন খেলার মতো সামর্থ্য তো আমাদের ছিল। তাই অধিনায়ক হিসেবে, ব্যাটসম্যান হিসেবে খুব হতাশ। খুবই খারাপ লাগছে। এভাবে হারতে হবে কখনো ভাবিনি। এই হারের জন্য আমি জাতির কাছে ক্ষমা চাইছি। ‘