মালিতে গ্রামে ঢুকে অতর্কিত হামলা, নিহত ১৩৪

0
45

ঢাকা , ২৬ মার্চ , (ডেইলি টাইমস২৪):

আফ্রিকার মালিতে একটি গ্রামে ঢুকে অস্ত্রধারীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে শতাধিক মানুষকে হত্যা করেছে।

স্থানীয় এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অস্ত্রধারীরা মোপতির ওগোসাগৌ এলাকায় বাড়ি-ঘরে হামলা চালানোর আগে পুরো গ্রাম ঘিরে ফেলেছিল। এ সময় তাদের পরনে ছিল ঐতিহ্যবাহী দগোন শিকারীদের পোশাক।

বিবিসি জানিয়েছে, শনিবারের ওই হামলায় বন্দুকধারীদের লক্ষ্য ছিল ফুলানি সম্পদ্রায়ের লোকজন।

নিকটবর্তী শহর ব্যাংকাসের মেয়র মাওলায়ে গুয়িনদো রয়টার্সকে জানান, তারা ১৩৪টি লাশ উদ্ধার করেছে।

নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্র জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে শিশু, বয়স্ক ও গর্ভবতী নারী রয়েছে।

মালিতে জাতিসংঘের রাষ্ট্রদূত এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সেখানে জাতিগত সম্প্রদায় এবং জিহাদি গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে সহিংসতা বেড়ে গেছে।

স্থানীয় এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেন, শনিবারের ওই ভয়াবহ হামলায়  বন্দুক ও রামদা ব্যবহার হয়েছে। গ্রামের বহু মানুষকে হত্যা করেছে তারা।

প্রতিবেশী ওউয়েনকরো গ্রামের মেয়র চেইক হারুনা সানকারা এই হামলার ঘটনাকে ভয়াবহ গণহত্যা বলে উল্লেখ করেছেন।

মালিতে প্রায়ই দগোন  ও ফুনাইদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। জমি ও পানির দখর নিয়ে তাদের মধ্যে আরো বড় ধরনের সংঘর্ষ হতে পারে।


দগোনদের অভিযোগ ফুলানি সম্প্রদায়ের লোকজন জিহাদি সংগঠনগুলোতে যোগ দিয়েছে। অন্যদিকে, ফুলানিদের অভিযোগ মালির সামরিক বাহিনী তাদের ওপর হামলা চালাতে  অস্ত্র দিচ্ছে দগোনদের।

গত বছর দগোন ও ফুলানি সম্প্রদায়ের মধ্যে সংঘর্ষে কয়েকশ মানুষ নিহত হয়েছে।

এর আগে গত শুক্রবার আল কায়েদার মালি শাখা বলেছে তারা সেদেশে একটি সামরিক ঘাঁটিতে হামলা করে ২০ জনের বেশি সেনা সদস্যকে হত্যা করেছে। তারা বলছে, ফুলানিদের ওপর সহিংসতার জবাবে তারা ওই হামলা করেছে।