প্রতিশোধ নিতেই খুন করা হয় সজিবকে

0
18

ঢাকা , ১২ অক্টোবর, (ডেইলি টাইমস২৪):

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে চাঞ্চল্যকর কিশোর সজিব হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন হয়েছে। ডিবি পুলিশ ও থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে গ্রেফতার হওয়া কিশোর গ্যাং গ্রুপের সদস্য ও খুনিরা এ হত্যার চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জের এবং প্রতিশোধ নিতেই অপহরণে পর সজিবকে খুন করে হাত-পা ও মুখ বেঁধে লাশ নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী আসামি আল আমিন শনিবার টাঙ্গাইলের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমন কর্মকারের কাছে ১৬৪ ধারায় এমন স্বীকারোক্তি দিয়েছে। তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মোরাদুজ্জামান ও ডিবির কনস্টেবল মো. শামসুজ্জামান।

পুলিশের ওই কর্মকর্তা জানান, অপহরণের পর ১৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ চাওয়া ছিল তাদের সাজানো নাটক। তাদের আসল উদ্দেশ্য ছিল যে কোনো উপায়ে সজিবকে খুন করা।

এদিকে এ খুনের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী। সজিবের পরিবারও খুনিদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান জানিয়েছেন, পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সজিবের পরিবারকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৫ সেপ্টেম্বর সজিবকে মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে অপহরণের পর খুন করে। ৩-৪ বছর আগে কিশোরদের বিরোধের জেরেই খুন হয় সজিব।