ভারতের কাছ থেকে লাভবান হওয়ার অনেক সুযোগ রয়েছে

0
43

ঢাকা , ০৫ নভেম্বর, (ডেইলি টাইমস২৪):

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, ভারত ও বাংলাদেশের মানুষের মাঝে বন্ধুত্বের দৃঢ়তা পারস্পরিক অধিকার সংরক্ষণে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করে। বন্ধু বন্ধুকে এবং ভাই ভাইকে কখনোই অধিকার থেকে বঞ্চিত করতে পারে না। বৃহৎ প্রতিবেশী হিসেবে ভারতের কাছ থেকে বাংলাদেশের লাভবান হওয়ার অনেক সুযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের অফিসে ভারতের আসাম থেকে আসা উচ্চপদস্থ একটি সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি দলের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত শিল্পী ভূপেন হাজারিকার অষ্টম মৃত্যুবাষির্কী উপলক্ষে প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশে এসেছে। সকালে আসাম থেকে আসা ভারতীয় সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি দলকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। এ সময় ভারতীয় প্রতিনিধি দলটি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন।

জিএম কাদের বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বন্ধুত্বের দীর্ঘ ঐতিহ্য রয়েছে। ভাষা ও সংস্কৃতিতে দুই দেশের রয়েছে দারুণ মিল। সীমান্তরেখা দুই দেশের মানুষের মধ্যে কোনো বিভেদ সৃষ্টি করতে পারেনি।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে লাখ লাখ বাংলাদেশিকে আশ্রয় দিয়ে ভারত অকৃত্রিম বন্ধুত্বের পরিচয় দিয়েছে। তাই ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে চমৎকার বন্ধুত্ব বিরাজ করছে।

তিনি বলেন, ভূপেন হাজারিকার গান এ দেশের মানুষের মুখে মুখে চিরকাল থাকবে। তার গান অধিকার আদায় এবং মানবিক সংগ্রামে অনুপ্রেরণা যোগাবে চিরকাল।

অনুষ্ঠানে সার্ক কালচারাল সোসাইটির চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার সভাপতিত্ব উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা মাহমুদুর রহমান মাহমুদ, যুগ্ম দফতর সম্পাদক এমএ রাজ্জাক খান, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দে।

ভূপেন হাজারিকার ভাই সমর হাজারিকাসহ অন্যান্য শিল্পীরা অনুষ্ঠানে তার বিখ্যাত সব গান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায় ও এসএম ফয়সল চিশতী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট লেখক পদ্যশ্রী সূর্য হাজারিকা, সর্বভারতীয় কংগ্রেসের আসাম রাজ্যের সেক্রেটারি রমেন রব ঠাকুর, বিশিষ্ট সাংবাদিক দেবজিৎ ভূঁইয়া, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ভৌমেন ভারতীয়া, আসামের সঙ্গীত তারকা দীক্ষু শর্মা, ড. মেন্দাস, ড. দীপালী দাস, দিশ্রী শর্মা, দেবজিৎ, বিজয়তা শর্মা, দাওয়ার হাজারিকা, ইবা হাজারিকা, নয়ন প্রতীম কুমার, বিধানতা শর্মা, বিধান দাস গুপ্ত, ড. সৌরভ ভারতী।