সাকিবকে নিয়ে বালাগঞ্জে শোভাযাত্রা

ঢাকা , ১৩ ফেব্রুয়ারি, (ডেইলি টাইমস২৪):

বিশ্বকাপ জয়ী অনুর্ধ্ব-১৯ দলের সদস্য তানজিম হাসান সাকিবকে কাছে পেয়ে রীতিমতো উৎসবের জনপদে পরিণত হয়েছিল তার গ্রামের বাড়ি বালাগঞ্জ উপজেলা। তাকে এক পলক দেখতে হাজার হাজার মানুষ রাস্তার পাশে ভিড় জমান। তাকে দেওয়া সংবর্ধনায়ও জড়ো হন বিপুল সংখ্যক মানুষ।

অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের পর আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রথমবারের মতো সিলেট আসেন সাকিব। দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে তিনি সিলেট পৌঁছান। সাকিবের বাবা গৌস আলী ও মা সেলিনা পারভিন ও আত্মীয়-স্বজন ছাড়াও তাকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত হন সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস, ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান, সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দাল মিয়া, বালাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মুমিনসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

বিমানবন্দর থেকে সাকিব প্রথমে যান নগরের হাউজিং এস্টেট এলাকায় চাচার বাসায়। এরপর মোটর শোভাযাত্রা সহকারে তাকে গ্রামের বাড়ি বালাগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

ঘরের ছেলেকে স্বাগত জানাতে বালাগঞ্জ যাওয়ার পথে তাজপুর ডাকবাংলো প্রাঙ্গনে আয়োজন করা হয় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সেখানে সকাল থেকেই ভিড় জমান বালাগঞ্জ এবং পার্শ্ববর্তী উপজেলা ওসমানীনগরের নানা বয়সী সহস্রাধিক মানুষ। এলাকাবাসীর এমন ভালোবাসায় আবেগাপ্লুত হন সাকিব।

নিজের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আপনাদের দোয়া, সাহস আর সমর্থন ছিল বলেই আমরা বিশ্বকাপ জিততে পেরেছি। এ জয় শুধু আমাদের নয়, এ জয় ওসমানীনগর-বালাগঞ্জবাসীর। এ জয় দেশের কোটি কোটি ক্রিকেটপাগল মানুষের।’

তাকে সংবর্ধনা দেওয়ায় কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সাকিব বলেন, ‘ইচ্ছে ছিল এলাকায় ফিরে যাকে সামনে পাব তাকেই জড়িয়ে ধরব বুকে। কিন্তু সময় কম আর এতো মানুষের কারণে এখন তা সম্ভব হচ্ছে না।’

এরপর শতাধিক মোটরসাইকেলে ‘সাকিব, সাকিব..’ স্লোগানে শোভাযাত্রার মাধ্যমে সাকিবকে বালাগঞ্জের তিলক চানপুরে তার গ্রামের বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়।