অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ, স্বামী পলাতক

ঢাকা , ১৩ ফেব্রুয়ারি, (ডেইলি টাইমস২৪):

নওগাঁর মান্দায় স্বামীর বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী আপেল শেখ পলাতক রয়েছেন। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূ আকতারুন বিবি উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের মীরপুর গ্রামের আপেল শেখের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, মীরপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দিন শেখের ছেলে আপেল শেখের সঙ্গে ৭-৮বছর আগে নওগাঁ সদর উপজেলার ভীমপুর গ্রামের আতোয়ার সরদারের মেয়ে আকতারুন বিবির বিয়ে হয়। এ দম্পতির ঘরে ৬ বছরের একটি ছেলে রয়েছে। আকতারুনের স্বামী আপেল শেখ পেশায় একজন ট্রাক্টর চালক।

স্থানীয়রা আরও জানান, সম্প্রতি নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার পাহাড়পুর এলাকায় দ্বিতীয় বিয়ে করেন আপেল শেখ। দ্বিতীয় বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ লেগে ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে গৃহবধূর মৃত্যুর খবর তারা জানতে পারেন।

নিহত আকতারুন বিবির স্বজনদের অভিযোগ, মেয়ে আকতারুন চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা। জামাই আপেল শেখ বেশ কিছুদিন ধরে যৌতুকের দাবিতে মেয়ের ওপর শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। যৌতুক না পেয়ে মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তারা।

নিহতের শাশুড়ি আফিজান বিবি জানান, ‘বুধবার সন্ধ্যার পর খাবার খেয়ে পুত্রবধূ ও নাতি তাদের ঘরে চলে যায়। এরপর আমিও শুয়ে পড়ি। ছেলে আপেল শেখ তখনও বাড়ি ফেরেনি। হঠাৎ রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুত্রবধূর চিৎকারে ঘুম ভেঙে যায়। এরপর জানতে পারি সে বিষপান করেছে। পরে মান্দা হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, নিহত গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় নিহতের বাবা আতোয়ার সরদার বাদী হয়ে জামাই ও বেয়ানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।