হাকিমপুরে দোকানপাট বন্ধ, রাস্তাাঘাট প্রায় শূন্য

হিলি প্রতিনিধি: দিনাজপুরের হাকিমপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসমাগম এড়াতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মাঠে নানামুখি তৎপরতা চালাচ্ছেন থানা পুলিশসহ আইন প্রয়োগকারি সংস্থার লোকেরা।
হাকিমপুর উপজেলার হিলি শহর ঘুরে দেখা যায় করোনা প্রাদুর্ভাবে সতর্কতা হিসাবে দোকানপাট বন্ধ রয়েছে । যাত্রী পরিবহন যানবাহনসহ জন চলাচল নিরুৎসাহিত করতে রাস্তায় রাস্তায় অভিযান চালাচ্ছেন তারা। এতে ঘরে ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন অতি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ীর বাইরে ঘুরে বেড়ানো মানুষেরা। টহল দেওয়ার পাশাপাশি করোনার ভয়াবহতা সম্পর্কে হ্যান্ড মাইকে প্রচারনা চালাচ্ছেন পৌর সভা। দোকানপাট বন্ধ ঘোষণাসহ জনসমাগম এড়িয়ে চলতে বলেছে । একই সাথে সাপ্তাহিক হাট-বাজারও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
হিলি হাকিমপুর পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত জানান, নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বেচা-কেনা যেমন ঔষধের দোকান, খাবারের দোকান, কাচাঁবাজার, মুদিখানা ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ রয়েছে।
জনসমাগম ও দুরত্ব নিশ্চিত করতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলমের নেতৃত্বে থানার অফিসার্স ইনচার্জ আব্দুর রাজ্জাক আকন্দ সহ থানা পুলিশ রাস্তায় রাস্তায় টহল অভিযান চালাচ্ছে।
জনসমাগম এড়িয়ে মানুষকে ঘরে ফিরে যেতে বার বার অনুরোধ করছে প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং ও গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই নির্দেশ জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।
দেশে করোনাভাইরাসের মোকাবেলায় সরকার ইতোমধ্যে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। এর প্রেক্ষিতে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক জনসাধারণকে ২৬ মার্চ সকাল ৬ টা থেকে অতিজরুরী কাজ যেমন- খাদ্য ও ঔষধ ক্রয়, চিকিৎসা ছাড়া কোনো ভাবেই বাড়ীর বাইরে বের না হতে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলম জানান,করোনা মহামারী মোকাবেলায় সংক্রমণ ঠেকাতে হিলি স্থলবন্দরের ব্যবসা বানিজ্যসহ উপজেলার সকল দোকানপাট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সাপ্তাহিক হাট গুলো বন্ধ থাকবে। তবে জনসমাগম পরিহার করে ওষুধ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ক্রয় বিক্রয় করা যাবে। অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়ীর বাইরে বের হওয়া যাবেনা। নির্দেশনা না মানলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।